HSC Islamic Studies Assignment Answer 2021 – এইচএসসি ২০২১ ইসলাম শিক্ষা এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

HSC Islamic Studies Assignment Answer 2021 for 7th week of 1st & 2nd Paper has given at our website. আপনি এখানে এইচএসসি ২০২১ ইসলাম শিক্ষা ৭ম সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর (১ম ও ২য় পত্র) দেখতে পাবেন. DSHE has published the assignment for task for two weeks together of the Islamic Studies / Islam Shikkha subject. Both papers solution has been given below.

HSC Islamic Studies Assignment Answer 2021 – এইচএসসি ২০২১ ইসলাম শিক্ষা এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

We have prepared the HSC Islamic Studies Assignment 2021 Answer. Here you will find the HSC 2021 Islamic Studies Assignment Answer for all weeks. We will publish Islamic Studies Answer randomly for all weeks. You will also find next week’s assignment solution here. You can create your Islam shikkha assignment with ideas from our solution.

Humanity Group More Assignment You May Check:

  1. History 1st & 2nd Paper Assignment Answer
  2. Islamic Islamic Studies and Culture
  3. Geography and Environment
  4. Civics and Good Governance
  5. Economics Assignment Answer
  6. Logic
  7. Sociology
  8. Social Work

Assignment 05 for 7th Week (Islamic Studies 1st Paper)

HSC 2021 Islamic Studies Assignment Answer 7th Week

1st Week Islamic Studies Assignment Answer (1st Paper)

শিরোনামঃ ইসলামি শিক্ষা ও সংস্কৃতি 
সমাধানঃ
ইসলাম শিক্ষার পরিচয় ও ধারণাঃ
ইসলাম শিক্ষার আরবি প্রতিশব্দ হলাে ইলম  এর অর্থ হলাে- জ্ঞান , জানা , অবগত হওয়া ইত্যাদি। 
ইসলামি পরিভাষায় কুরআন ও হাদিসভিত্তিক এমন জ্ঞান অন্বেষণ করা যার মাধ্যমে ইসলামি জীবনব্যবস্থার ওপর চলা সহজ হয় । ইিলম দ্বারা বােঝায় মহান আল্লাহকে জানবার জ্ঞান এবং এ অর্থে দ্বীন বিষয়ক যেকোনাে জনকে ইসলাম শিক্ষা বলা হয় । ইসলাম শিক্ষার পরিচয় এভাবেও দেওয়া যায়— “ ইসলাম শিক্ষা এমন একটি বিষয় যার পঠন – পাঠন , অধ্যয়ন , অনুশীলন করলে আল্লাহর দেওয়া পরিপূর্ণ জীবন বিধান – দীন ইসলামের স্বরূপ সম্পর্কে জ্ঞানলাভ করা যায় এবং তদনুযায়ী স্বীয় জীবন গঠন ও পরিচালনা করে আল্লাহ প্রদত্ত খেলাফতের দায়িত্ব – কর্তব্য যথাযথভাবে পালন করার প্রয়ােজনীয়তা অনুভব করা যায় । ” এ জ্ঞান মানুষের মহামূল্যবান সম্পদ , যা মহান আল্লাহর শ্রেষ্ঠ অবদান । 
এ সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালার ঘােষণা . “ আল্লাহ তায়ালা তােমার প্রতি কিতাব ও হিকমত অবতীর্ণ করেছেন আর তুমি যা জানতে না তা তােমাকে শিক্ষা দিয়েছেন । তােমার প্রতি আল্লাহর মহানুগ্রহ রয়েছে । ” ( সূরা নিসা : ১১৩ )
সর্বোপরি , যে শিক্ষা মুসলিম দার্শনিক , মুসলিম বৈজ্ঞানিক , মুসলিম অর্থনীতিবিদ , মুসলিম ঐতিহাসিক সৃষ্টি করবে – তাই ইসলামি শিক্ষা নামে অবহিত হওয়ার যােগ্য । 

ইসলাম শিক্ষার প্রকৃত রূপঃ

ইসলাম শিক্ষার স্বরূপ হবে কুরআন ও হাদিসের অনুকূলে বিধিসম্মত শিক্ষা । আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কতকগুলাে বিষয় সম্বন্ধে জ্ঞান রাখা একান্ত প্রয়ােজন । যেমন- মহান আল্লাহ , রাসুল , ফেরেশতা , কিয়ামত , পুনরুত্থান , সালাত , সাওম , হজ , যাকাত , হালাল – হারাম ইত্যাদি । এগুলাে সম্বন্ধে সম্যক জ্ঞান অর্জন করে মেনে চলা একান্ত কর্তব্য । অপরপক্ষে কেউ যদি এগুলাে পালন না করে , তাহলে সে পরিপূর্ণ মুসলমান হতে পারবে না। কেননা এগুলাে শিক্ষালাভ করা ফরযে আইন । 

হাদিসের মাধ্যমে বলা যায় , এ ধরনের জ্ঞান অর্জনকে প্রত্যেক নরনারীর ওপর ফরয করে দেওয়া হয়েছে, অর্থ- প্রত্যেক মুসলমানের ওপর জ্ঞান অর্জন করা ফরয । ( বায়হাকি ) 

এছাড়া আরও কতকগুলাে শিক্ষা রয়েছে । যেমন— জ্ঞান সম্প্রসারিত করার জন্য উচ্চশিক্ষা লাভ করা , প্রকৌশল , চিকিৎসা ও কারিগরি শিক্ষালাভ করা । কলা , মানবিক , বাণিজ্য , বিজ্ঞান ও জ্ঞান – বিজ্ঞানের অন্যান্য শাখায় শিক্ষালাভ করাও এ শিক্ষার অন্তর্ভুক্ত । এসমস্ত শিক্ষা জনকল্যাণমূলক শিক্ষা । তবে এখানে আল্লাহর অস্তিত্বকে পরিহার করলে চলবে না । বস্তুত আল্লাহ ও রাসুলের আদর্শ সামনে রেখে এসমস্ত শিক্ষা অর্জন করতে হবে । আল্লাহ তায়ালা এক , অদ্বিতীয় , তাঁর কোনাে শরীক নেই । হযরত মুহাম্মদ ( সা . ) তাঁর প্রেরিত রাসুল । আমরা একমাত্র আল্লাহরই ইবাদত করব । আমরা যা কিছু শিক্ষাগ্রহণ করব সবই একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে।

যেসব শিক্ষালাভ করলে আল্লাহ তায়ালা সন্তুষ্ট থাকেন আমরা তাই শিক্ষালাভ করব । অপরপক্ষে যেসব শিক্ষা লাভে মহান আল্লাহ অসন্তুষ্ট হন , আমরা তা বর্জন করব । অর্থাৎ আমরা পুঁথিগত বিদ্যা অর্জন করব না , বরং বস্তুগত শিক্ষালাভ করে তা কার্যে পরিণত করব এবং আল্লাহর রাস্তায় সুদৃঢ় থাকব । নৈতিক শিক্ষার সাথে বস্তুগত উ শিক্ষার সমন্বয় সাধন করব । তাহলে বিভ্রান্ত ও পথভ্রষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না। 

ইসলাম শিক্ষার উদ্দেশ্যঃ

ইসলাম শিক্ষার উদ্দেশ্য হলাে— ইসলামকে সঠিকভাবে জানার ও মানার মাধ্যমে আল্লাহর খাঁটি গােলাম হিসেবে ব্যক্তি তৈরি করা এবং তার সন্তুষ্টি অর্জন করা । ফলে ইসলাম শিক্ষা মানুষের শারীরিক , মানসিক , নৈতিক ও আত্মিক বিকাশ সাধন করে মানুষকে সত্যিকারের মানুষে রূপান্তরিত করে । ইসলাম শিক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তি ও সমাজজীবনপ মৌলিক পরিবর্তন সাধন সম্ভব হয় । এর কল্যাণে ব্যক্তি আদর্শ ও চরিত্রবান হয় , সুনাগরিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং সমাজ – রাষ্ট্র তথা বিশ্বের সম্পদে পরিণত হয় । তাই ইসলাম শিক্ষা মানুষের জন্য ইহকালে সার্বিক কল্যাণ বয়ে আনে এবং পরকালে জাহান্নামের আগুন হতে মুক্তির ব্যবস্থা করে ।

>ইসলাম শিক্ষার মূল উদ্দেশ্যকে আমরা তিনটি ভাগে বিভক্ত করতে পারি 

১.ধর্মীয় উদ্দেশ্য , 
২.নৈতিক উদ্দেশ্য ও 
৩.পার্থিব উদ্দেশ্য । 

>ইসলাম শিক্ষার ধর্মীয় উদ্দেশ্যঃ 

ইসলাম শিক্ষার প্রথম উদ্দেশ্য হলাে- আল্লাহকে চেনা । মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর আনুগত্য তথা ইবাদত বন্দেগি করার জন্য মানবজাতি সৃষ্টি । যেমন আল্লাহ বলেন:
[ আমি জিন ও মানুষকে আমার ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছি ।] ( সূরা যারিয়াত : ৫৬ )
ইবাদত করতে হলে প্রথমে আল্লাহর সঠিক পরিচয় , ও বন্দেগির ধরন এবং তা আদায় করার নিয়ম পদ্ধতি অবগত হওয়া একান্ত অপরিহার্য । আর শিক্ষা ব্যতীত এগুলাে অবগত হওয়া যায় না । প্রকৃত জ্ঞানীরাই আল্লাহর স্বরূপ বােঝে তাঁর যথাযথ ইবাদত করতে পারেন । 

[এ মর্মে আল্লাহ বলেন , “ নিশ্চয়ই আল্লাহর বান্দাহগণের মধ্যে কেবল বিদ্বানগণই আল্লাহকে ভয় করে । ”] ( সূরা ফাতির : ২৮ )

ইসলাম শিক্ষার অন্যতম উদ্দেশ্য হচ্ছে- পরকালকে জানা এবং পরকালের চিরস্থায়ী জীবনের মুক্তি , শান্তি ও সাফল্য লাভ । এ শিক্ষায় পার্থিব জীবন ক্ষণস্থায়ী এবং পারলৌকিক জীবন চিরস্থায়ী । কাজেই আসল ও প্রকৃত সাফল্য হচ্ছে আখিরাতের সাফল্য । আর ইসলাম শিক্ষার প্রকৃত উদ্দেশ্য এ পারলৌকিক স্থায়ী জীবনের চূড়ান্ত ও পরম সাফল্য লাভ । ইসলাম শিক্ষার আরেকটি উদ্দেশ্য হচ্ছে– মানব সমাজকে সুবিচারের ওপর প্রতিষ্ঠিত করবার যােগ্যতা অর্জন । অর্থাৎ সমাজজীবনে আল্লাহর দ্বীনকে সঞ্জীবিত করা ও প্রতিষ্ঠিত করা । বিশ্বনবি ( সা . ) তিরোধানের মাধ্যমেই নবুয়তের সিলসিলার পরিসমাপ্তি ঘটে । তার পরে আর কোনাে নবির আগমন ঘটবে না । নবির উম্মাহর ওপর দ্বীনের হিফাজত ও প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব বর্তিয়েছে । কাজেই ইলমে দ্বীন শিক্ষা করে একে সঞ্জীবিত রাখা ও প্রতিষ্ঠা করা এ জমানার উম্মতের আলেমদের প্রধান কর্তব্য । এজন্য মুসলিম উম্মাহর উলামায়ে কিরামকে নবিদের উত্তরসূরী বলা হয়েছে।
[ “ আলেমগণ নবিদের ওয়ারিস । ”] ( তিরমিযি.

ইসলাম শিক্ষার নৈতিক উদ্দেশ্য ঃ

নৈতিকতা হলাে ব্যক্তির মৌলিক মানবীয় গুণ এবং জীবনের শ্রেষ্ঠ সম্পদ, যা অর্জন করলে তার জীবন সুন ! উন্নত হয় । এর মাধ্যমে সে অর্জন করে সম্মান ও মর্যাদা। ইসলাম শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হলাে মানবতা । নৈতিকতার বিকাশ সাধন । মানব প্রকৃতির প্রতিভাকে শিক্ষার মাধ্যমে জাগরিত ও বিকশিত করা । মানুষের মেক মননশীলতা , কর্মকুশলতা ও দক্ষতা শিক্ষার মাধ্যমে বিকশিত হয় । ইসলাম শিক্ষার মাধ্যমে আতার উন্নতি হয় দয়া , মায়া , স্নেহ – মমতা ইত্যাদি মানবীয় গুণাবলি উৎকর্ষিত ও বিকশিত হয় । মানবীয় গুণাবলি বিবর্জিত মন পশুর চেয়েও অধম ।

[আল্লাহ তায়ালা বলেন অর্থ : তারা পশুর মতাে ; বরং তার চেয়েও অধম । ” ( সূরা আরাফ : ১৭৯)]

এ শিক্ষা ব্যক্তি চরিত্রের উৎকর্ষ সাধন , পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও কর্তব্যবােধ জাগ্রতকরণের মাধ্যমে ব্যক্তি , পরিবার ? সমাজজীবনকে সুন্দর , সুশৃঙ্খল ও শান্তিময় করে তুলতে সহায়তা করে । একটি ন্যায় ভিত্তিক আদর্শ পরিবার , সমাজ , রাষ্ট্র ও বিশ্ব গঠনে ইসলাম শিক্ষা সহায়তা করতে পারে । কেন ইসলাম শিক্ষার মাধ্যমেই মানুষকে অসম্প্রদায়িক , সাম্য , উদার মানবতাবােধ ও ন্যায়নীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল কয়ে গড়ে তােলা যায় । তাই বলা যায় যে , নৈতিক শিক্ষা ইসলাম শিক্ষার অবিচ্ছেদ্য অংশ।

ইসলাম শিক্ষার পার্থিব উদ্দেশ্য – : 

জীবনকে সঠিকভাবে পরিচালনা করার যােগ্যতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যেই শিক্ষা ব্যবস্থার প্রয়ােজন । হালাল জী উপার্জনে উৎসাহিত করা ও আত্মকর্মসংস্থানে সক্ষম করে গড়ে তােলা ইসলাম শিক্ষার অন্যতম বড় উদশ আল্লাহ তায়ালা যেমন বান্দাহকে সালাত, সাওম ও অন্যান্য ইবাদত করার আদেশ দিয়েছেন । তেমনি কি জীবিকা উপার্জনেরও নির্দেশ দিয়েছেন । 
[তিনি ঘােষণা করেন  অর্থ “ সালাত সমাপ্ত করে তােমরা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড় এবং আল্লাহর অনুগ্রহ সন্ধান কর । ”] 

তােমরা ফজরের সালাত আদায় করার পর তোমাদের জীবিকার সন্ধান না করে ঘুমিয়ে যেওনা ।  

[মহানবি ( সা . ) আরও ইরশাদ করেছেন অর্থাৎ মহানবি ( সা . ) হালাল জীবিকা উপার্জনকে ফরয় বলে ঘোষণা করেছেন ।]

মহানবি ( সা ) এমের এক – তাগিদ দিয়েছেন । তিনি ঘােষণা করেছেন সূল সুর করেছেন । আমি অমন মানুষ সে সকল আৰয়ার ও আহরণ করে করে । জন অন ব্যতীত অন্ত ও সমৃদ্ধি অৱন করা ব নয় । আবার মানবজাতির জন্য নিখিল বিশ্বের অফুরন্ত সম্পদ সৃষ্টি করেছেন।
 
ইসলাম শিক্ষার গুরুত্বঃ
 
HSC Islamic Studies Assignment Answer 2021
HSC Islamic Studies Assignment Answer 2021

2nd Week HSC Islamic Studies Assignment Answer

Assignment 02 for 2nd Week – (Islamic Studies 2nd Paper)

Note: This week answer is coming soon please keep patience to get the solution timely.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *